সার্জারির কারণে সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা থেকে বাদ ৪৩ উট


প্রকাশিত:
১৮ ডিসেম্বর ২০২১ ০৯:১৮

আপডেট:
২৯ জানুয়ারী ২০২২ ০১:২৭

কসমেটিক সার্জারি ও সৌন্দর্যবর্ধক ইঞ্জেকশন প্রয়োগের কারণে চলতি বছর সৌদি আরবে উটের সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা থেকে বাদ পড়েছে ৪৩টি উট। দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদমাধ্যম সৌদি প্রেস এজেন্সির(এসপিএ) বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

সৌদি সংস্কৃতির অপরিহার্য অঙ্গ উট। প্রতি বছরই দেশটির রাজধানী রিয়াদের উত্তরপূর্বদিকের মরু অঞ্চলে বেশ জাঁকজমকের সঙ্গে আয়োজন করা হয় উটের সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা। ‘কিং আবদুল আজিজ ক্যামেল ফেস্টিভ্যাল’ নামের এই প্রতিযোগিতায় বিচারকদের রায়ে যে উটটি সবচেয়ে সুন্দর হিসেবে স্বীকৃতি পায়, তার মালিককে পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয় ৬ কোটি ৬০ লাখ ডলার।

ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে জানুয়ারির শেষার্ধ পর্যন্ত ৪০ দিন ধরে চলে এই প্রতিযোগিতা।

এই সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় উটের ঠোঁট ও কুঁজকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। গত কয়েক বছর ধরে অভিযোগ উঠছে- প্রতিযোগিতায় জয়ী হওয়ার জন্য অনেক উটের মালিক প্লাস্টিক সার্জারির মাধ্যমে তাদের উটের ঠোঁটের সৌন্দর্য বাড়তে প্লাস্টিক সার্জারির আশ্রয় নিচ্ছেন, কুঁজকে আরও সুন্দর ও নিটোল করার জন্য ব্যবহার করছেন বিশেষ ইনজেকশন।

প্রতিযোগিতার আয়োজকরা অবশ্য শুরু থেকেই এ ব্যাপারে কঠোর। কোনো প্রকার সার্জারির মধ্যে দিয়ে উটকে যেতে হয়েছে কি না জানতে রীতিমতো এক্সরে করা হয় প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া প্রতিটি উটের। ফলে, প্রতিবছরই প্রতিযোগিতা থেকে বাদ পড়ে কিছু সংখ্যক উট।

কিন্তু এবার বাদপড়া উটের সংখ্যা সর্বোচ্চ বলে জানিয়েছে এসপিএ। প্রতিযোগিতার এক আয়োজক বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘এই ইভেন্টে অংশ নেওয়া প্রতিটি উটকে অবশ্যই তার জন্মগত শারীরিক বৈশিষ্ট ধরে রাখতে হবে। কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে খুবই স্পর্ষকাতর। আমরা বারবার উটের মালিকদের এ কথা বলেছি, কিন্তু অনেকেই এটিকে গুরুত্ব সহকারে নিচ্ছে না।’

‘এ কারণে কর্তৃপক্ষও এবার কঠোর হয়েছে। যেসব মালিক প্লাস্টিক সার্জারি কিংবা ইনজেকশনের মাধ্যমে তাদের উটকে সুন্দর করেছেন, তাদেরকে অবশ্যই জরিমানা দিতে হবে এবং এই প্রতিযোগিতার দরজা তাদের জন্য চিরতরে বন্ধ থাকবে। ভবিষ্যতে তারা কখনও এই ইভেন্টে অংশ নিতে পারবেন না।’



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top