দুই দেশের সঙ্গেই কূটনৈতিক সমঝোতায় সফল

ভ্যাকসিন পেতে চীনের সঙ্গে আছে বাংলাদেশ, রাশিয়ার সঙ্গেও আছে


প্রকাশিত:
২২ এপ্রিল ২০২১ ২০:০৪

আপডেট:
২০ জুন ২০২১ ১২:০৭

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন আজ বলেছেন, রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে টিকা উৎপাদন ও সংরক্ষণের ব্যাপারে চীন ও রাশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশ সম্মত হয়েছে। করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন পেতে চীনের উদ্যোগে ‘ইমার্জেন্সি ভ্যাকসিন স্টোরেজ ফ্যাসিলিটি ফর কোভিড ফর সাউথ এশিয়া’ প্লাটফর্মে যুক্ত হতে রাজি হয়েছে বাংলাদেশ। এই প্লাটফর্মে থাকছে চীন, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, পাকিস্তান, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন,‘শুরুতেই চীন উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে ৬ লাখ ডোজ টিকা উপহার দেবে। যখন যার দরকার হবে এই ফ্যাসিলিটি থেকে তারা ভ্যাকসিনগুলো সংগ্রহ করবে। এটাকে বলছি সাউথ এশিয়া কো–অপারেশন (পারস্পরিক সহযোগিতা)। এখন আমরা চীনের সঙ্গে সম্পর্ক করেছি। চীন আমাদের ভ্যাকসিন দেবে। এ ভ্যাকসিন তারা খুব শিগগিরই দেবে।’

তবে উপহারের টিকা নিতে একটি সমঝোতা স্মারক সই করা হবে যার খসড়া তৈরিও শেষ হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী। এদিকে রাশিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে করোনাভাইরাসের টিকা উৎপাদনের জন্য চুক্তি সই করেছে বাংলাদেশ। তবে দেশটির সঙ্গে যৌথভাবে টিকা উৎপাদনের পাশাপাশি বাণিজ্যিকভাবেও টিকা কিনবে বাংলাদেশ।

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘রাশিয়া আমাদের টিকা দিতে যে রাজি, সেটা জানিয়েছে। তবে বাংলাদেশের যে চাহিদা, সেটা তারা পূরণ করতে পারবে না। এ জন্য তারা টিকার ফর্মুলা দিতে রাজি হয়েছে। তারা জানিয়েছে, যৌথভাবে টিকা উৎপাদন হতে পারে। তবে বাংলাদেশকে একটা কাজ করতে হবে। টিকা উৎপাদনের ফর্মুলা বাংলাদেশ কাউকে দেখাতে পারবে না। টিকার ফর্মুলা গোপন রাখা হবে, এটা কাউকে জানানো হবে না, এই শর্তে আমরা চুক্তি সই করেছি।’



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top