পোল্যান্ড সীমান্ত থেকে শরণার্থী সরালো বেলারুশ


প্রকাশিত:
১৯ নভেম্বর ২০২১ ১২:৫৭

আপডেট:
১৯ নভেম্বর ২০২১ ১৯:৪৬

পোল্যান্ড সীমান্তে আটকে পড়া শরণার্থীদের সরিয়ে নিয়েছে বেলারুশ। প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে চলে আসা শরণার্থী সংকট সমাধান করতেই তাদেরকে সেখান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

বেলারুশের কর্মকর্তা এবং গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স এবং সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

ইরাক থেকে যাওয়া শরণার্থীদের বেআইনিভাবে ঢোকার ব্যবস্থা করে দেওয়া নিয়ে সপ্তাহ দু’য়েক আগে পোল্যান্ড সীমান্ত অস্থিতিশীল হয়ে ওঠে। গত গ্রীষ্ম থেকেই বেলারুশ হয়ে পোল্যান্ড সীমান্ত অতিক্রম করে ইউরোপে প্রবেশের চেষ্টা করছেন শরণার্থীরা।

সর্বশেষ গত মঙ্গলবার সকালে সীমান্ত এলাকায় আটকে থাকা শরণার্থীদের সাথে পোলিশ সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সংঘর্ষে উত্তাল হয়ে ওঠে পোল্যান্ড-বেলারুশ সীমান্ত। শরণার্থীরা জোর করে সীমানা অতিক্রমের চেষ্টা করার পর সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের সময় শরণার্থীদের ওপর জলকামান ও টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে পোলিশ বর্ডার গার্ড ও নিরাপত্তারক্ষীরা।

অবশ্য গত সপ্তাহ থেকেই তীব্র শীত ও ঠান্ডা আবহাওয়ার মধ্যে ওই দুই দেশের সীমান্ত এলাকায় অবস্থান করছেন হাজার হাজার শরণার্থী। আটকে পড়া এসব শরণার্থীদের বেশিরভাগই ইরাক থেকে যাওয়া।

সেখানে কার্যত প্রাণের সঙ্গে লড়াই করে অবস্থান করছিলেন হাজার হাজার শরণার্থী। প্রবল ঠান্ডার মধ্যে কোনোরকমে অস্থায়ী আশ্রয় তৈরি করে সেখানে অবস্থান করছিলেন তারা। সীমান্তের ওই এলাকায় খাবার ও প্রয়োজনীয় পানির সংকট রয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলারুশের রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম জানায়, পোল্যান্ড-বেলারুশ সীমান্ত এলাকা থেকে অনেক শরণার্থী সরে গেছেন এবং পার্শ্ববর্তী একটি গরম গুদামঘরে আশ্রয় নিয়েছেন। অস্থায়ী আশ্রয় শিবিরে পরিণত হওয়া এই গুদামঘরটি পোল্যান্ড সীমান্ত থেকে খুব বেশি দূরে নয়।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, সীমান্তের বেলারুশ অংশে থাকা শরণার্থীদের ক্যাম্পগুলো বৃহস্পতিবার পুরোপুরি ফাঁকা ছিল বলে জানিয়েছেন পোল্যান্ডের বর্ডারগার্ডের একজন মুখপাত্র। একই তথ্য নশ্চিত করেছেন বেলারুশের একজন প্রেস কর্মকর্তা।

পোলিশ বর্ডারগার্ডে ওই মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘শরণার্থীদের ওই ক্যাম্পগুলো এখন ফাঁকা। শরণার্থীদেরকে খুব সম্ভবত ট্রান্সপোর্ট-লজিস্টিকস সাপোর্ট সেন্টারে নেওয়া হয়েছে। ওই স্থানটি সীমান্ত এলাকা থেকে খুব দূরে নয়।’

এর আগে তীব্র শীত ও ঠান্ডা আবহাওয়ার মধ্যে ওই দুই দেশের সীমান্ত এলাকায় বেশ কয়েকদিন অবস্থান করেন হাজার হাজার শরণার্থী। আটকে পড়া এসব শরণার্থীদের বেশিরভাগই ইরাক থেকে যাওয়া। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে শরণার্থীদের ফেরত নেওয়ার ঘোষণা দেয় ইরাক।

মূলত বেলারুশ সীমান্ত দিয়ে পোল্যান্ডে ঢোকার চেষ্টা করা শরণার্থীদের অধিকাংশই ইরাকের নাগরিক। তাদের মধ্যে একটি বড় অংশ আবার জাতিগতভাবে কুর্দি। ইরাকি ছাড়াও সিরিয়া ও আফগানিস্তানের মানুষও সেখানে আছেন।



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top