মমতা হারলেও মুখ্যমন্ত্রী


প্রকাশিত:
৩ মে ২০২১ ০০:১৬

আপডেট:
১৭ মে ২০২১ ০৬:২২

ছবি : সংগৃহীত
পশ্চিমবঙ্গের নন্দীগ্রাম আসনে কে জিতেছেন তা নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দেওয়ার পর আলোচিত ওই আসনে ভোটের ফল ঘোষণা স্থগিত করা হয়েছে।
 
এই বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেস টানা তৃতীয় দফায় জয়ী হতে চলেছে। ২১৫টি আসনে এগিয়ে রয়েছে তারা, যেখানে জয়ের জন্য প্রয়োজন ১৪৮টি। তবে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সেই নন্দীগ্রামে ভোটের ফল নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে।
 
এখন মূল আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে- মমতা নন্দীগ্রাম আসনে হারলেও মুখ্যমন্ত্রী হতে পারবেন কি না। ভারতীয় নির্বাচনের সংবিধান বলছে, মমতা সরকারও গঠন করতে পারবেন। মুখ্যমন্ত্রীও হতে পারবেন। সেক্ষেত্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আগামী ছয় মাসের মধ্যে অন্য কোনো আসন থেকে জিততে হবে। তবেই তিনি মুখ্যমন্ত্রীর পদ ধরতে রাখতে পারবেন। যাকে বলা হয়, ‘অ্যাক্টিং চিফ মিনিস্টার। ’ তখনও যদি হারেন দল সিদ্ধান্ত নেবে কাকে করা হবে মুখ্যমন্ত্রী।
 
মুর্শিদাবাদ জেলায় সামশেরগঞ্জ ও জঙ্গিপুর, দুই আসনে ভোট হবে ১৬ মে। ওই দুই কেন্দ্রে সংযুক্ত মোর্চার দুই প্রার্থী করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। সে কারণেই ভোট পিছিয়েছে নির্বাচন কমিশন। হতে পারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওই দু’টি আসনের মধ্যে কোনো একটি বেছে নিতে পারেন অথবা তার কোনো পছন্দের আসন থেকেও তিনি প্রার্থী হতে পারেন। সেক্ষেত্রে তৃণমূলের বিজয়ী কোনো বিধায়ককে জেতা আসন থেকে পদত্যাগ করতে হবে।
 
তবে শোনা যাচ্ছে. নিজের গড় অর্থাৎ দক্ষিণ কলকাতার ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে ফের ভোটে দাঁড়াতে পারেন মমতা বন্দোপাধ্যায়।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top