এমবাপের রিয়ালে যাওয়া বাকি কেবল সময়ের!


প্রকাশিত:
১৮ মে ২০২২ ০৩:২২

আপডেট:
২ জুলাই ২০২২ ১৩:৩০

রিয়াল মাদ্রিদে যাচ্ছেন এমবাপে, নাকি পিএসজিতেই থাকছেন-ফরাসি ফরোয়ার্ডের ভবিষ্যৎ ঘিরে এই দুটি সম্ভাবনাই এতদিন উঁকি দিচ্ছিল সমানতালে। অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনা বুঝি শেষ হতে চলেছে। গত দুই সপ্তাহের ঘটনাপ্রবাহে মাদ্রিদ শিবিরের পাল্লা ভারি হতে দেখা যাচ্ছে। স্প্যানিশ ফুটবল বিশেষজ্ঞ গিয়েম বালাগের প্রতিবেদন মতে, আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যেই ফরাসি তারকা বর্তমান ঠিকানা ছেড়ে রিয়ালে যাওয়ার ঘোষণা দেবেন।

২০১৭ সালে মোনাকো থেকে এমবাপের ধারে পিএসজিতে যাওয়ার আগে থেকে শুরু হয়েছিল তার রিয়ালে যাওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে গুঞ্জন। সেবার অবশ্য অল্পতেই থেমে যায় সেসব। পরের বছর প্যারিসের ক্লাবটির সঙ্গে পাকা চুক্তি করেন তিনি।

এরপর মাঝেমধ্যেই এসেছে উড়ো খবর। পুরনো সব গুঞ্জন বাস্তব রূপ নেওয়ার শক্ত মঞ্চ তৈরি হয় গত মৌসুমের শেষে। তাকে পেতে উঠেপড়ে লেগেছিল রিয়াল। ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী ফরোয়ার্ডও তখন শৈশবের প্রিয় ক্লাবে যেতে উন্মুখ ছিলেন। কিন্তু পিএসজি তাকে ছাড়তে ছিল নারাজ। স্পেনের সফলতম দলটি রেকর্ড ট্রান্সফার ফি দিতে প্রস্তুত থাকলেও মন বদলায়নি পিএসজি কর্মকর্তাদের।

আগামী জুনে পিএসজির সঙ্গে চুক্তি শেষ হবে এমবাপের। গত ১ জানুয়ারি থেকেই অবশ্য এমবাপে হয়ে গেছেন ফ্রি এজেন্ট। জার্মান সংবাদমাধ্যম বিল্ড ওই মাসেই জানিয়েছিল, রিয়ালের সঙ্গে চুক্তি হয়ে গেছে এমবাপের। আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসতেই কেবল বাকি।

তবে তাদের সেই প্রতিবেদনের সত্যতা কতটুকু ছিল, তা নিয়ে প্রশ্ন জাগতে শুরু করে পরের কয়েক মাসে চিত্রপটে নানা নতুনত্ব যোগ হওয়ায়। পরের মাসে এমবাপে যেমন নিজেই জানান, সবই উড়ো খবর, ভিত্তিহীন। এপ্রিলের শুরুতে এসে তার মন বদলের আভাস দেয় ফরাসি গণমাধ্যমগুলো। ২৩ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড নিজেও বলেন, প্যারিসে বেশ ভালো আছেন তিনি। এখানে থেকে যাওয়ার সম্ভাবনার কথাও বলেন।

 

এপ্রিলেই বিবিসি তাদের প্রতিবেদনে জানায়, রিয়ালের সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছেছেন এমবাপে।

বিবিসির এবারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এমবাপেকে সাইনিং ফি ১৫ কোটি ইউরো দিতে প্রস্তুত ছিল পিএসজি। তবে লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা আশাবাদী, আগামী কিছুদিনের মধ্যেই এমবাপে তার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করবেন।

আগামী জুনের শুরুতে নেশন্স লিগে খেলতে জাতীয় দলে যোগ দেবেন এমবাপে। রিয়ালের ধারণা, তার আগেই বিষয়টি ঘিরে সবকিছু ফয়সালা হয়ে যাবে। বালাগের প্রতিবেদনেও তাই বলা হয়েছে।

“দুই পক্ষের মধ্যে পূর্বে যে সমঝোতা হয়েছিল তার প্রতি সম্মান জানানো হবে বলে আশাবাদী রিয়াল; যদিও মাঝে পিএসজি সাইনিং ফি হিসেবে ১৫ কোটি ইউরো দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়ার পর এমবাপে চুক্তির কিছুটা পাল্টাতে চেয়েছিল।”


“এরপর থেকে যে বিষয়গুলো চূড়ান্ত হওয়ার প্রয়োজন (ছিল), সেগুলো হচ্ছে ইমেজ স্বত্ব এবং চুক্তি সংশ্লিষ্ট কিছু বিষয়। তবে ব্যক্তিগত শর্তগুলো পূরণ করা হয়েছে বলে জোর দিয়ে জানায় মাদ্রিদ।”

মাঝে অনেকবার পিএসজির পক্ষ থেকে বলা হয়, এমবাপেকে ধরে রাখতে তারা সম্ভবপর যে কোনো কিছু করবে। দলটির কোচ মাওরিসিও পচেত্তিনোও কয়েকবার বলেছেন, এমবাপে এখানেই থাকবেন বলে তার বিশ্বাস।

পিএসজির পক্ষ থেকে যখনই এমবাপেকে নিয়ে নতুন কোনো গল্প বলা হয়েছে, তখন প্রতিবারই রিয়ালের পক্ষ থেকে একরকম নিশ্চয়তার সুরেই বলা হয়েছে, চিন্তার কিছুর নেই, এমবাপে রিয়ালেই আসছেন-বালাগের সবশেষ প্রতিবেদনেও ঠিক এই কথাগুলোই বলা হয়েছে।

সবশেষ গত রোববার এ বিষয়ে কথা বলেন এমবাপে নিজেই। টানা তৃতীয়বারের মতো লিগ ওয়ানের মৌসুম সেরা পুরস্কার হাতে নিয়ে তিনি বলেন, ভবিষ্যৎ নিয়ে মনস্থির করে ফেলেছেন তিনি। পাকা সিদ্ধান্তটা যদিও জানাননি সময়ের সবচেয়ে প্রতিভাবান তারকা ফুটবলার।

 



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top